মেহেরপুরে টিউবওয়েলের পানিতে রোগমুক্তির নতুন গুজব

শনিবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ৫:৪৯ অপরাহ্ণ

মেহেরপুরে টিউবওয়েলের পানিতে রোগমুক্তির নতুন গুজব
apps

মেহেরপুরে একটি টিউবওয়েলে থেকে হাতলে চাপ ছাড়াই অনবরত পানি বের হচ্ছে। এই পানি পানে রোগমুক্তি হয়-এমন গুজবে দলে দলে ছুটে আসছে মানুষ। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এটি কোন অস্বাভাবিক ঘটনা নয় এবং এই পানিতে রোগ নিরাময়ের বৈজ্ঞানিক কোন ভিত্তি নেই।

টিউবওয়েলের পানি পানে রোগ মুক্তির গুজবে দলে দলে পানি সংগ্রহে আসছেন লোকজন। গাংনীর ভাবানিপুর গ্রামে টিউবওয়েল থেকে অনবরত পানি বের হওয়ার বিষয়টি মোবাইলে ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেওয়া হয়। এরপরই বিষয়টি অলৌকিক ভেবে অনেকেই আসতে থাকেন পানি নিতে।

টিউবওয়েলের মালিক আনারুল ফকির জানান, চার-পাঁচ হাজার লোক আসা হয়ে গেছে। তারা নিয়ে যাচ্ছে, খাচ্ছে। পানি খুব পরিস্কার, খাইতে ভাল লাগছে এবং পানি খুব ঠাণ্ডা। তারা অনেক গুণাগুণের কথা বলছে কিন্তু এর মধ্যে আমাদের কোন কিছু কেরামতি নাই।

পানি নিতে আসা অনেকেই বলছেন, এই পানিকে আমরা বিশ্বাস করে নিয়ে যাই, দেখি কি হয়। একলাই পানি উঠছে তাই আসলাম নিতে। মনে করছি, যে কোন রোগের জন্য খাইলে রোগ ভাল হয়ে যাবে।

টিউবয়েল থেকে পানি বের হওয়াটা কোন অলৌকিক বা অতি প্রাকৃতিক ঘটনা নয়। এটাকে আর্টিজান ওয়েল বলে। অস্ট্রেলিয়াতে এভাবে সেচের ব্যবস্থাও করা হয় বললেন বিশেষজ্ঞ।

গাংনী সরকারী ডিগ্রি কলেজের ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত সহকারী অধ্যাপক এনামুল আযীম বলেন, যেখান থেকে পানি তোলা হয় সেই স্তরটা যদি গামরার মতো হয়ে যায় তাইলে তার দুই প্রান্ত থেকে এটাতে অতিরিক্ত পানি প্রবেশ করে। যখন প্রবেশ করে তখন তল্লাটে পানির চাপটা বেশি হয়, এর মধ্যাকর্ষণ চাপে টিউবওয়েল থেকে অটোমেটিকভাবে পানি বের হতে থাকে। এই পানিতে রোগের মুক্তি মিলবে এর কোন বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই- বললেন চিকিৎসক।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্জারী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডাঃ মোঃ মাহবুবুল আলম (বিপ্লব) বলেন, একটা একটা রোগ একটা একটা ইন্ডিভিজ্যুাল আইডেনটিটি বহন করে। তার আইডেনটিটি এবং ডাইগনস্টিটির ড্রাইলেটিংও আলাদা, তার চিকিৎসা ব্যয়ও আলাদা। সে জন্যই কখনই এরকম ভিত্তি হতে পারে না যে একটা জায়গা দিয়ে পানি উঠছে, সেই পানি খেলে মানুষের সমস্ত রোগ ভাল হয়ে যাবে। এমন গুজবে বিভ্রান্ত না হওয়ার পরামর্শ তাদের।

Development by: webnewsdesign.com