আদালতে মামলার রায় হয়েছে জনি ডেপের পক্ষে

মঙ্গলবার, ২৩ আগস্ট ২০২২ | ১২:৪৪ অপরাহ্ণ

আদালতে মামলার রায় হয়েছে জনি ডেপের পক্ষে
apps

তারকা দম্পতি জনি ডেপ আর অ্যাম্বার হার্ডের তিন বছরের বৈবাহিক সম্পর্কে দাম্পত্য কলহ পৌঁছেছে চরমে। এই দুই তারকার পাল্টাপাল্টি মামলার সাক্ষী হয়েছে ভার্জিনিয়ার আদালত। সম্প্রতি মামলায় গোহারা হেরেছেন অ্যাম্বার। ২০১৮ সালে জনি ডেপের বিরুদ্ধে প্রথম মামলা করেন অ্যাম্বার। এর ঠিক পরেই ডেপ তার স্ত্রী অ্যাম্বারের বিরুদ্ধে মানহানি মামলায় অভিযোগ করেন।

জনি ডেপের করা মামলায় অ্যাম্বার আবার মামলা করে স্বামীর ওপর অভিযোগ আনেন যে, তিনি মিথ্যা বলছেন। জোড়া মামলার শুনানিতে চলে বিস্তর কাদা ছোড়াছুড়ি।অবশেষে আদালতে মামলার রায় হয়েছে জনি ডেপের পক্ষে। মামলায় হেরে যাওয়ায় এখন অ্যাম্বারকে গুনতে হবে ১১৬ কোটি টাকা।ডেপকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে দেয়া ১১৬ কোটি টাকা কীভাবে অ্যাম্বার জোগাড় করবে?ডেপের সঙ্গে অ্যাম্বারের সম্পর্কের ইতি ঘটেছে এই ইলন মাস্কের কারণেই। মাস্কের প্রেমে পড়েই অ্যাম্বার ‘পাইরেটস অব দ্য ক্যারিবিয়ন’ তারকাকে প্রতারণা করেছেন বলে মনে করছেন অনেকে।গুঞ্জন উঠেছে, অ্যাম্বারের এমন দুঃসময়ে প্রেমিক টেসলার সিইও ইলন মাস্কই ভরসা।

এই মামলায় আর্থিকভাবে সাহায্য করার জন্য প্রেমিককে নাকি জোরাজুরিও করেছেন অ্যাম্বার।মাস্ক এই অনুরোধে রাজি হলে ১১৬ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণের ৮২ কোটি ৬৭ লাখ টাকা দিতে পারেন। কেন তিনি প্রেমিকার জন্য এত টাকা খরচ করতে যাবেন? এমন প্রশ্নেরও উত্তর খুঁজছেন ভক্তরা।অনেকে বলছেন, কোটিপতি হার্ডের কন্যা ওনাঘের বাবা নাকি আসলে মাস্ক। ওনাঘের জন্মের জন্য তিনি নাকি শুক্রাণু দান করেছিলেন। সারোগেসির মাধ্যমে জন্ম নেয়া মেয়ে ওনাঘের মা হিসেবে তাই প্রেমিক মাস্ক এই সাহায্য করতেই পারেন প্রেমিকা অ্যাম্বারকে।

Development by: webnewsdesign.com